স্মার্ট ব্রোকারেজে রূপান্তরের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে এনবিএল সিকিউরিটিজ

0

স্টকরিপোর্ট প্রতিবেদক: দেশের পুঁজিবাজারে ইতিবাচক পরিবর্তন নিয়ে আসার লক্ষ্যে আধুনিকায়নের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে এনবিএল সিকিউরিটিজ লিমিটেড (এনবিএলএসএল)। শেয়ারবাজারে লেনদেনের অভিজ্ঞতা উন্নত করার মধ্য দিয়ে একটি বিনিয়োগকারী-বান্ধব (কাস্টমার-সেন্ট্রিক) ব্রোকারেজ হাউজ হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে কাজ করে যাচ্ছে তারা।

দেশের অন্যান্য ব্রোকারেজ হাউজগুলো সাধারণত লেনদেনের পরিমাণের ওপর গুরুত্ব দেয় এবং এক্ষেত্রে গ্রাহকের অভিজ্ঞতা যথাযথ গুরুত্ব সহকারে বিবেচিত হয় না। প্রযুক্তিগত অবকাঠামোর অগ্রগতির মধ্য দিয়ে এনবিএল সিকিউরিটিজ নিজেদের গ্রাহকদের জন্য নিরবচ্ছিন্ন ও ঝামেলাহীন লেনদেন অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে আগ্রহী।

এক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে এনবিএল সিকিউরিটিজের নিজস্ব অর্ডার ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (ওএমএস) ও নতুন ব্যাক-অফিস। এসব উদ্যোগ গ্রহণের মধ্য দিয়েই স্মার্ট ব্রোকারেজে রূপান্তরের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে এনবিএল সিকিউরিটিজ। প্রত্যাশা করা হচ্ছে এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটি দেশের পুঁজিবাজারে ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে। স্মার্ট ব্রোকারেজ বিনিয়োগকারীর সামগ্রিক অভিজ্ঞতাকে অগ্রাধিকার দেয় এবং প্রযুক্তিগত সুবিধার মাধ্যমে বিনিয়োগ সংক্রান্ত সকল প্রক্রিয়া ও সেবা আরও সহজতর করার ওপর গুরুত্বারোপ করে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) থেকে ফিক্স (ফাইন্যান্সিয়াল ইনফরমেশন এক্সচেঞ্জ) সার্টিফিকেশন অর্জন করার পর থেকে পুঁজিবাজারে লেনদেন অভিজ্ঞতা আরও উন্নত করতে সর্বাধুনিক ফিনটেক প্রযুক্তির ব্যবহার করছে এনবিএল সিকিউরিটিজ। এছাড়া, অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে এনবিএল সিকিউরিটিজের কর্মীরা বিনিয়োগকারীদের যেকোনো প্রয়োজন পূরণে আরও বেশি সময় উৎসর্গ করতে পারবেন।

এ প্রসঙ্গে এনবিএল সিকিউরিটিজ লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর (এমডি) জোবায়েদ আল মামুন হাসান বলেন, “এনবিএল সিকিউরিটিজ বিনিয়োগকারীদের প্রয়োজনকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করে এবং আমরা আমাদের সকল কার্যক্রমে গ্রাহকদের সন্তুষ্টিকে প্রাধান্য দেই, যার মাধ্যমে আমরা সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। গ্রাহক-কেন্দ্রিক প্রতিষ্ঠানে পরিণত হতে সম্প্রতি আমরা এ সংক্রান্ত কৌশলও নির্ধারণ করেছি। পাশাপাশি, ডিজিটালাইজেশন ও রূপান্তরের মাধ্যমে পুঁজিবাজারে লেনদেন অভিজ্ঞতায় নতুন মাত্রা যোগ করা আমাদের লক্ষ্য। আমরা সকল গ্রাহকের জন্য লেনদেন আরও সহজতর করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।”

প্রতিষ্ঠানটির আধুনিকায়ন উদ্যোগের কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে ওএমএসের বাস্তবায়ন। ওএমএসের পরিপূরক হিসেবে আছে নতুন ব্যাক-অফিস, যা লেনদেন পরবর্তী সকল প্রক্রিয়া নির্ভুলভাবে সম্পূর্ণ করতে সহায়ক হবে। স্বয়ংক্রিয় এই প্রক্রিয়ার ফলে এনবিএল সিকিউরিটিজের কর্মীরা সকল বিনিয়োগকারীর জন্য পার্সোনালাইজড ও উন্নত গ্রাহকসেবা নিশ্চিত করতে মনোযোগী হবে এবং এই কৌশলগত পরিবর্তনের ফলে গ্রাহকের প্রয়োজন আরও কার্যকরভাবে পূরণ করা সম্ভব হবে।

উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের প্রয়োজনকে অগ্রাধিকার দেওয়ার প্রত্যয় এনবিএল সিকিউরিটিজকে এই খাতের অন্যদের থেকে আলাদা করেছে। বিনিয়োগকারী-বান্ধব ব্রোকারেজ হয়ে ওঠার মাধ্যমে বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের ইতিবাচক পরিবর্তন নিয়ে আসার ব্যাপারে প্রতিশ্রæতিবদ্ধ এনবিএল সিকিউরিটিজ। এই অনুকরণীয় যাত্রার ফলে এই খাতে নতুন স্ট্যান্ডার্ড তৈরি, অন্যদের জন্য একটি উদাহরণ এবং সর্বোপরি বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের উন্নয়ন হবে বলে আশাবাদী এনবিএল সিকিউরিটিজ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.